LIC Head officeCentral Government Government Jobs Trending News 

ভারতীয় জীবনবীমায় ২১৮ ইঞ্জিনিয়ার, অফিসার

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক: অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার (এ ই) ও অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (এ এ ও) পদে ২১৮ জনকে নিচ্ছে ভারতীয় জীবনবীমা নিগম লিমিটেডে। নিয়োগ হবে সিভিল, ইলেক্ট্রিক্যাল, আর্কিটেক্ট, রাজভাষা, সিএ সহ বিভিন্ন পদে। শুরুতে ১ বছরের প্রবেশন। তবে প্রবেশনের মেয়াদ আরও ২ বছর বাড়তে পারে।

অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার (সিভিল): শূন্যপদ ২৯টি। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বি ই/ বি টেক ডিগ্রিধারীরা ৩ বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে আবেদন করতে পারেন।
অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার (ইলেক্ট্রিক্যাল): শূন্যপদ ১০টি। ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বি ই/ বি টেক ডিগ্রিধারীরা ৩ বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে আবেদন করতে পারেন।
অ্যাসিস্ট্যান্ট আর্কিটেক্ট (আর্কিটেক্ট): শূন্যপদ ৪টি। আর্কিটেকচারের ব্যাচেলর ডিগ্রিধারীরা আর্কিটেকচার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ায় নাম নথিভুক্ত থাকলে এবং সংশ্লিষ্ট কাজে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা থাকলে আবেদন করতে পারেন।

অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার (স্ট্রাকচারাল): শূন্যপদ ৪টি। স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের এম ই/ এম টেক ডিগ্রিধারীরা ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকলে আবেদন করতে পারেন।
অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার (ইলেক্ট্রিক্যাল/ মেকানিক্যাল- এমইপি ইঞ্জিনিয়ার্স): শূন্যপদ ৩টি। মেকানিক্যাল/ ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বি ই/ বি টেক ডিগ্রিধারীরা সংশ্লিষ্ট কাজে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা থাকলে আবেদন করতে পারেন।

অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (সিএ): শূন্যপদ ৪০টি। ব্যাচেলর ডিগ্রিধারীরা ইনস্টিটিউট অফ চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট অফ ইন্ডিয়ার ফাইনাল পরীক্ষায় পাশ করে থাকলে এবং আর্টিক্যাল সম্পূর্ণ করে থাকলে আবেদন করতে পারেন। সঙ্গে প্রার্থীকে ইনস্টিটিউট অফ চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট অফ ইন্ডিয়ার অ্যাসোসিয়েট মেম্বার হতে হবে।

অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (অ্যাকচুয়ারিয়াল): শূন্যপদ ৩০টি। যে কোনও শাখার ব্যাচেলর ডিগ্রিধারীরা ১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখের হিসেবে ইনস্টিটিউট অফ অ্যাকচুয়ারিজ অফ ইন্ডিয়া/ ইউনাইটেড কিংডমের ইনস্টিটিউট অ্যান্ড ফ্যাকাল্টি অফ অ্যাকচুয়ারিজ আয়োজিত ৬টি বা তার বেশি পেপারে বাধ্যতামূলক পাশ করে থাকলে আবেদন করতে পারেন।

অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (লিগ্যাল): শূন্যপদ ৪০টি। আইনের ব্যাচেলর ডিগ্রিধারী অথবা এলএলএম ডিগ্রিধারীরা বার কাউন্সিলে ৩ বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে আবেদন করতে পারেন।

অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (রাজভাষা): শূন্যপদ ৮টি। হিন্দি/ হিন্দি ট্রান্সলেশনের পোস্ট গ্র্যাজুয়েট মাস্টার ডিগ্রিধারীরা ব্যাচেলর স্তরে ইংরিজি একটি বিষয় হিসেবে পড়ে থাকলে অথবা ইংরিজির পোস্ট গ্র্যাজুয়েট মাস্টার ডিগ্রিধারীরা ব্যাচেলর স্তরে হিন্দি একটি বিষয় হিসেবে পড়ে থাকলে অথবা সংস্কৃতের পোস্ট গ্র্যাজুয়েট মাস্টার ডিগ্রিধারীরা ব্যাচেলর স্তরে হিন্দি এবং ইংরিজি একটি বিষয় হিসেবে পড়ে থাকলে আবেদন করতে পারেন।

অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (আইটি): শুন্যপদ ৫০টি। কম্পিউটার সায়েন্স/ আইটি/ ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রিধারীরা অথবা কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনের মাস্টার বা কম্পিউটার সায়েন্সের এমএসসি ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারেন।

সবক্ষেত্রেই বয়স হতে হবে ১-২-২০২০ তারিখের হিসেবে ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। অর্থাৎ জন্মতারিখ হতে হবে ২-২-১৯৯০ থেকে ১-২-১৯৯৯-এর মধ্যে। তফশিলিরা ৫, ওবিসিরা ৩, শারীরিক প্রতিবন্ধীরা ১০ বছর বয়সের ছাড় পাবেন। মূল মাইনে ৩২,৭৯৫ – ৬২,৩১৫ টাকা। সঙ্গে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা। শুরুতে সব মিলিয়ে মাসে প্রায় ৫৭,০০০ টাকা।

প্রার্থীবাছাই হবে লিখিত পরীক্ষা, ইন্টারভিউ, নথিপত্র যাচাই ও ডাক্তারি পরীক্ষা মাধ্যমে। লিখিত পরীক্ষায় থাকবে দুটি ফেজ। প্রথম ফেজের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় থাকবে ৩৫ নম্বরের রিজনিং এবিলিটি (সময় ২০ মিনিট), ৩০ নম্বরের গ্রামার, ভোকাবুলারি সহ ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (সময় ২০ মিনিট) এবং ৩৫ নম্বরের কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউট (সময় ২০ মিনিট) বিষয়ের প্রশ্ন। উত্তরের জন্য মোট সময় পাবেন ২ ঘণ্টা।

দ্বিতীয় ফেজের মেইন পরীক্ষায় থাকবে ৯০ নম্বরের রিজনিং (সময় ৪০ মিনিট), ৬০ নম্বরের জেনারেল নলেজ, কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স (সময় ২০ মিনিট), ৯০ নম্বরের প্রফেশনাল নলেজ (সময় ৪০ মিনিট) এবং ৬০ নম্বরের ইনশিওরেন্স অ্যান্ড ফিনান্সিয়াল মার্কেট আওয়ার্নেস (সময় ২০ মিনিট) বিষয়ের প্রশ্ন। উত্তরের জন্য মোট সময় পাবেন ২ ঘণ্টা। এছাড়া অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (লিগাল) পদের ক্ষেত্রে থাকবে অতিরিক্ত ২৫ নম্বরের ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (সময় ৩০ মিনিট) বিষয়ের প্রশ্ন।

পরীক্ষা দিতে যাওয়ার সময় বৈধ কললেটার, কোনও সচিত্র পরিচয়পত্র ও তার জেরক্স সঙ্গে নিয়ে যাবেন। সব শেষে হবে ৬০ নম্বরের ইন্টারভিউ। পরীক্ষার কললেটার ডাউনলোড করতে পারবেন ২৭ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত। প্রিলিমিনারি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ ৪ এপ্রিল। মেইন পরীক্ষার দিনক্ষণ পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এছাড়া তফশিলি, ওবিসি ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের প্রি-এক্সাম ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা আছে। যাঁরা এই সুবিধা নিতে ইচ্ছুক তাঁদের অনলাইন আবেদনপত্র সাবমিশনের পরে এলআইসি-র সংশ্লিষ্ট ডিভিশনাল অফিস নাম রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। সেখান থেকেই ট্রেনিংয়ের সময়, স্থান, তারিখ ইত্যাদি জানতে পারবেন।

আবেদন করবেন অনলাইনে www.licindia.in ওয়েবসাইটের মাধ্যমে, ১৫ মার্চের মধ্যে। অনলাইন আবেদন করতে বসার আগে নিজের পাসপোর্ট মাপের ছবি, সই, বাম হাতের বুড়ো আঙুলের ছাপ এবং ইংরিজিতে নিজের হাতে লেখা ঘোষণাপত্র স্ক্যান করে রাখবেন। দরখাস্ত করার সময় আপলোড করতে হবে। ঘোষণাপত্রের বয়ান পাবেন ওপরে বলা ওয়েবসাইটে। প্রথমে ওপরে বলা ওয়েবসাইটে গিয়ে নাম রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তখন পাবেন রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও পাসওয়ার্ড। এগুলি যত্ন করে লিখে রাখবেন।

আবেদনের ফি বাবদ দিতে হবে ৭০০ (তফশিলি ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে ৮৫) টাকা। অনলাইনে ফি জমা দেবেন ডেবিট কার্ড (রূপে/ ভিসা/ মাস্টার কার্ড/ মায়েস্ট্রো), ক্রেডিট কার্ড, ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং, আইএমপিএস, ক্যাশ কার্ড/ মোবাইল ওয়ালেটের মধ্যে। অতিরিক্ত ফি প্রার্থীকেই বহন করতে হবে। অনলাইনে ফি পেমেন্ট হয়ে গেলে ই-রিসিপ্টের প্রিন্ট নিয়ে নেবেন। এবার যাবতীয় তথ্য সঠিকভাবে যাচাই করে সিস্টেম জেনারেটেড এপ্লিকেশন ফর্মের প্রিন্ট নিয়ে নিজের কাছে রাখবেন। পরে প্রয়োজন হবে। আরও বিস্তারিত জানতে পারবেন ওপরে বলা ওয়েবসাইটে।

পিডিএফ ডাউনলোড করুন:– https://licindia.in/Bottom-Links/Careers/Recruitment-of-Assistants-2020
অনলাইন আবেদন করুন:– https://licindia.in/Bottom-Links/Careers/Recruitment-of-Assistants-2020

Related posts

Leave a Comment