trade and technician aprenticeCentral Government Course Curret Affairs Engineering Government Jobs Training 

ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনে ৪০৪ অ্যাপ্রেন্টিস

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক: ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস ও টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিস পদে ৪০৪ জনকে নিচ্ছে ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের ইস্টার্ন রিজিয়নের ৫টি জোনে। নিয়োগ হবে অ্যাপ্রেন্টিসেস অ্যাক্ট ১৯৬১ (সংশোধনী ১৯৭৩) অনুযায়ী ফিটার, ইলেক্ট্রিশিয়ান, মেশিনিস্ট সহ বিভিন্ন ডিসিপ্লিনে।

রাজ্য অনুযায়ী আসন সংখ্যাগুলি হল— ওয়েস্ট বেঙ্গল: মোট আসন সংখ্যা ১৭২টি। এরমধ্যে থেকে ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (ফিটার/ ইলেক্ট্রিশিয়ান/ ইলেক্ট্রনিক মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক/ মেশিনিস্ট): মোট আসন সংখ্যা ৭১টি (অসং ২৮, আর্থিকভাবে দুর্বল ৭, তঃজাঃ ১৬, তঃউঃজাঃ ৪, ওবিসি ১৬)। মাধ্যমিক পাশ প্রার্থীরা এনসিভিটি/ এসসিভিটি স্বীকৃত সংশ্লিষ্ট ট্রেডের আইটিআই সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিস (মেকানিক্যাল/ ইলেক্ট্রিক্যাল/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন/ সিভিল/ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স/ ইলেক্ট্রনিক্স): মোট আসন সংখ্যা ৯০টি (অসং ৩৬, আর্থিকভাবে দুর্বল ৯, তঃজাঃ ২১, তঃউঃজাঃ ৫, ওবিসি ২০)। সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের ৩ বছরের ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ফ্রেশার অ্যাপ্রেন্টিস): মোট আসন সংখ্যা ৬টি (অসং ২, আর্থিকভাবে দুর্বল ১, তঃজাঃ ১, ওবিসি ১, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ১)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (স্কিল সার্টিফিকেট হোল্ডার): মোট আসন সংখ্যা ৫টি (অসং ২, আর্থিকভাবে দুর্বল ১, তঃজাঃ ১, ওবিসি ১)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা ডোমেস্টিক ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের স্কিল সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

বিহার: মোট আসন সংখ্যা ৪৯টি। এরমধ্যে থেকে ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (ফিটার/ ইলেক্ট্রিশিয়ান/ ইলেক্ট্রনিক মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক/ মেশিনিস্ট): মোট আসন সংখ্যা ১৮টি (অসং ৮, আর্থিকভাবে দুর্বল ২, তঃজাঃ ৩, ওবিসি ৫)। মাধ্যমিক পাশ প্রার্থীরা এনসিভিটি/ এসসিভিটি স্বীকৃত সংশ্লিষ্ট ট্রেডের আইটিআই সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিস (মেকানিক্যাল/ ইলেক্ট্রিক্যাল/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন/ সিভিল/ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স/ ইলেক্ট্রনিক্স): মোট আসন সংখ্যা ২৯টি (অসং ১৩, আর্থিকভাবে দুর্বল ৩, তঃজাঃ ৫, ওবিসি ৮)। সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের ৩ বছরের ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ফ্রেশার অ্যাপ্রেন্টিস): মোট আসন সংখ্যা ১টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (স্কিল সার্টিফিকেট হোল্ডার): মোট আসন সংখ্যা ১টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা ডোমেস্টিক ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের স্কিল সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ওড়িশা: মোট আসন সংখ্যা ৫৪টি। এরমধ্যে থেকে ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (ফিটার/ ইলেক্ট্রিশিয়ান/ ইলেক্ট্রনিক মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক/ মেশিনিস্ট): মোট আসন সংখ্যা ২৫টি (অসং ৯, আর্থিকভাবে দুর্বল ৩, তঃজাঃ ৪, তঃউঃজাঃ ৬, ওবিসি ৩)। মাধ্যমিক পাশ প্রার্থীরা এনসিভিটি/ এসসিভিটি স্বীকৃত সংশ্লিষ্ট ট্রেডের আইটিআই সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিস (মেকানিক্যাল/ ইলেক্ট্রিক্যাল/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন/ সিভিল/ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স/ ইলেক্ট্রনিক্স): মোট আসন সংখ্যা ২৬টি (অসং ১০, আর্থিকভাবে দুর্বল ৩, তঃজাঃ ৪, তঃউঃজাঃ ৬, ওবিসি ৩)। সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের ৩ বছরের ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ফ্রেশার অ্যাপ্রেন্টিস): মোট আসন সংখ্যা ২টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (স্কিল সার্টিফিকেট হোল্ডার): মোট আসন সংখ্যা ১টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা ডোমেস্টিক ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের স্কিল সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ঝাড়খন্ড: মোট আসন সংখ্যা ২৮টি। এরমধ্যে থেকে ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (ফিটার/ ইলেক্ট্রিশিয়ান/ ইলেক্ট্রনিক মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক/ মেশিনিস্ট): মোট আসন সংখ্যা ১০টি (অসং ৪, আর্থিকভাবে দুর্বল ১, তঃজাঃ ১, তঃউঃজাঃ ৩, ওবিসি ১)। মাধ্যমিক পাশ প্রার্থীরা এনসিভিটি/ এসসিভিটি স্বীকৃত সংশ্লিষ্ট ট্রেডের আইটিআই সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিস (মেকানিক্যাল/ ইলেক্ট্রিক্যাল/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন/ সিভিল/ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স/ ইলেক্ট্রনিক্স): মোট আসন সংখ্যা ১৬টি (অসং ৬, আর্থিকভাবে দুর্বল ২, তঃজাঃ ২, তঃউঃজাঃ ৪, ওবিসি ২)। সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের ৩ বছরের ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ফ্রেশার অ্যাপ্রেন্টিস): মোট আসন সংখ্যা ১টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (স্কিল সার্টিফিকেট হোল্ডার): মোট আসন সংখ্যা ১টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা ডোমেস্টিক ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের স্কিল সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

অসম: মোট আসন সংখ্যা ৮৬টি। এরমধ্যে থেকে ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (ফিটার/ ইলেক্ট্রিশিয়ান/ ইলেক্ট্রনিক মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক/ মেশিনিস্ট): মোট আসন সংখ্যা ২৩টি (অসং ১০, আর্থিকভাবে দুর্বল ২, তঃজাঃ ২, তঃউঃজাঃ ৩, ওবিসি ৬)। মাধ্যমিক পাশ প্রার্থীরা এনসিভিটি/ এসসিভিটি স্বীকৃত সংশ্লিষ্ট ট্রেডের আইটিআই সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিস (মেকানিক্যাল/ ইলেক্ট্রিক্যাল/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন/ সিভিল/ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স/ ইলেক্ট্রনিক্স): মোট আসন সংখ্যা ৬০টি (অসং ২৭, আর্থিকভাবে দুর্বল ৬, তঃজাঃ ৪, তঃউঃজাঃ ৭, ওবিসি ১৮)। সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের ৩ বছরের ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১২ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ফ্রেশার অ্যাপ্রেন্টিস): মোট আসন সংখ্যা ১টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (স্কিল সার্টিফিকেট হোল্ডার): মোট আসন সংখ্যা ২টি (অসং)। দ্বাদশ শ্রেণি পাশ প্রার্থীরা ডোমেস্টিক ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের স্কিল সার্টিফিকেটধারী হলে আবেদন করতে পারেন। ট্রেনিংয়ের মেয়াদ ১৫ মাস।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-অ্যাকাউন্টস: মোট আসন সংখ্যা ১৫টি (ওয়েস্ট বেঙ্গলে ৬টি, বিহারে ৫টি, ওড়িশায় ১টি, ঝাড়খন্ডে ১টি, অসমে ২টি)। মোট ১৫টি আসনের মধ্যে থেকে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ৫, শ্রবণ প্রতিবন্ধী ৪, অস্থি প্রতিবন্ধী ৪, মাল্টিপল ডিসেবিলিটি ২)। যে কোনও শাখার পুরো সময়ের গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারেন।

সবক্ষেত্রেই শিক্ষাগত যোগ্যতায় অন্তত ৫০ (তফশিলি ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে ৪৫) শতাংশ নম্বর নিয়ে পাশ করে থাকতে হবে। তবে বি ই/ বি টেক/ এমবিএ/ সিএ/ এলএলবি/ এমসিএ বা উচ্চতর যোগ্যতার প্রার্থীরা আবেদন করবেন না। এছাড়া যাঁরা পূর্বে এই ধরনের ট্রেনিং নিয়েছেন বা যাঁদের সংশ্লিষ্ট ট্রেড ১ বছর বা তার বেশি কাজের অভিজ্ঞতা আছে তাঁরাও আবেদন করবেন না। অন্যদিকে যাঁরা ৩১-৩-২০২০ তারিখের হিসেবে শিক্ষাগত যোগ্যতা অর্জনের পর ৩ বছর অতিক্রান্ত হয়ে গেছে তাঁরাও আবেদনের যোগ্য নন।

বয়স হতে হবে ৩১-৩-২০২০ তারিখের হিসেবে ১৮ থেকে ২৪ বছরের মধ্যে। সংরক্ষিত শ্রেণির প্রার্থীরা সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বয়সের ছাড় পাবেন। ট্রেনিং চলাকালীন নির্ধারিত হরে স্টাইপেন্ড পাবেন।

প্রার্থীবাছাই হবে লিখিত পরীক্ষা, নথিপত্র যাচাই ও ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে। লিখিত পরীক্ষায় থাকবে ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস-অ্যাকাউন্টস ডিসিপ্লিনের ক্ষেত্রে ৩০ নম্বরের কোয়ান্টিটেটিভ অ্যাপ্টিটিউট সহ জেনেরিক অ্যাপ্টিটিউট, ৩০ নম্বরের রিজনিং এবিলিটি, ৪০ নম্বরের বেসিক ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ স্কিল বিষয়ের প্রশ্ন। ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (ডেটা এন্ট্রি অপারেটর) ট্রেডের ক্ষেত্রে থাকবে ২৫ নম্বরের রিজনিং এবিলিটি অ্যান্ড জেনারেল অ্যাপ্টিটিউট, ২৫ নম্বরের বেসিক ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ স্কিল, ২৫ নম্বরের কোয়ান্টিটিভ অ্যাপ্টিটিউট এবং ২৫ নম্বরের জেনারেল আওয়ার্নেস বিষয়ের প্রশ্ন।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (ফিটার/ ইলেক্ট্রিশিয়ান/ ইলেক্ট্রনিক্স মেকানিক/ ইনস্ট্রুমেন্ট মেকানিক/ মেশিনিস্ট) এবং ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (মেকানিক্যাল/ ইলেক্ট্রিক্যাল/ ইনস্ট্রুমেন্টেশন/ সিভিল/ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স/ ইলেক্ট্রনিক্স) ট্রেডের ক্ষেত্রে থাকবে ৪০ নম্বরের সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের টেকনিক্যাল জ্ঞান, ২০ নম্বরের কোয়ান্টিটিভ অ্যাপ্টিটিউট সহ জেনেরিক অ্যাপ্টিটিউট, ২০ নম্বরের রিজনিং এবিলিটি এবং ২০ নম্বরের বেসিক ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ স্কিল বিষয়ের প্রশ্ন। সবক্ষেত্রেই উত্তরের জন্য সময় পাবেন ৯০ মিনিটে। মাল্টিপল চয়েজ টাইপের এই পরীক্ষার প্রশ্ন হবে ইংরিজি ও হিন্দিতে।

পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন ১৪ এপ্রিল থেকে। লিখিত পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ ১৯ এপ্রিল। লিখিত পরীক্ষা হবে কলকাতা, পাটনা, ভুবনেশ্বর, রাঁচি এবং গুয়াহাটিতে। নথিপত্র যাচাইয়ের সময় যাবতীয় প্রমাণপত্রের মূলগুলি সঙ্গে নিয়ে যাবেন। নথিপত্র যাচাইয়ের জন্য সফল প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশিত হবে ২৩ এপ্রিল থেকে।

আবেদনের জন্য প্রথমে ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস প্রার্থীদের রিজিওনাল ডিরেক্টরেট অফ অ্যাপ্রেন্টিসশিপ ট্রেনিং পোর্টালে (http://www.apprenticeship.gov.in ওয়েবসাইটে), টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিস প্রার্থীদের বোর্ড অফ অ্যাপ্রেন্টিসশিপ ট্রেনিং পোর্টালে (https://portal.mhrdnats.gov.in ওয়েবসাইটে) এবং ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (অপশনাল ট্রেডের) প্রার্থীদের এনএসডিসি পোর্টালে (https://apprenticeshipindia.org ওয়েবসাইটে) নাম রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। নাম রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেলে পাবেন এনরোলমেন্ট নম্বর। এটি যত্ন করে লিখে রাখবেন।

ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনে আবেদন করবেন অনলাইনে www.iocl.com বা https://iocl.com/PeopleCareers/Apprenticeships.aspx ওয়েবসাইটের মাধ্যমে, ১০ এপ্রিলের মধ্যে। অনলাইন আবেদন করতে বসার আগে যাবতীয় প্রমাণপত্র ওয়েবসাইটে দেওয়া নির্দেশ অনুযায়ী স্ক্যান করে রাখবেন। দরখাস্ত করে সময় আপলোড করতে হবে। এবার যাবতীয় তথ্য সঠিকভাবে যাচাই করে সিস্টেম জেনারেটেড অ্যাপ্লিকেশন ফর্মের প্রিন্ট নিয়ে নিজের কাছে রাখবেন। পরে প্রয়োজন হবে। এই ট্রেনিংয়ের বিজ্ঞপ্তি নং: IOCL/MKTG/ER/APPR/2020-21/1. আরও বিস্তারিত জানতে পারবেন ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের ওয়েবসাইটে।

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিসদের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন করুন:- http://www.apprenticeship.gov.in/Pages/Apprenticeship/home.aspx

টেকনিশিয়ান অ্যাপ্রেন্টিসদের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন করুন:-https://portal.mhrdnats.gov.in/boat/commonRedirect/registermenunew!registermenunew.action

ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস (অপশনাল ট্রেডের) ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন করুন:-https://apprenticeshipindia.org

Related posts

Leave a Comment