ayurvedic mixtureKnowledge Update Miscellaneous 

কোভিড-১৯ সংকটে প্রতিরোধ গড়তে আয়ুষ মন্ত্রকের দিশা

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক: কোভিড-১৯ সংকট গ্রাস করেছে গোটা বিশ্বকে। তার মারণ -দংশনে মানবজাতি আজ দিশেহারা। এই অবস্থায় শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলা ছাড়া আর কোনো পথ নেই। ইংরেজিতে একটা প্রবাদ আছে -‘Prevention is better than cure.’ এখনও এমন ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত হয়নি যার প্রয়োগে কোভিড-১৯ সংক্রমণ ঠেকানো যেতে পারে।

এই অবস্থায় দরকার কয়েকটি রক্ষাকবচ, যা ব্যবহার করে শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলা যাবে। আয়ুর্বেদ হল গাছ -গাছড়া ভিত্তিক জীবন বিজ্ঞান। ‘দিনাচার্য’ ও ‘ঋতুচার্য’ পদ্ধতি প্রয়োগের মাধ্যমে আমরা নীরোগ ও সুস্থ জীবন যাপন করতে পারি। কোভিদ -১৯ সংক্রমণের হাত থেকে শরীরকে রক্ষা করতে রোজ কী কী করতে হবে বা করা দরকার তার দিশা দেখিয়ে আয়ুষ মন্ত্রক কয়েকটি পদ্ধতি অবলম্বন করার কথা বলেছে ——

মান্য পদ্ধতিসমূহ

  • ১। সাধারণ মান্য পদ্ধতি :–
    • a) সারাদিন গরম জল পান করুন।
    • b) রোজ অন্তত আধ ঘন্টা ধরে যোগাসন, প্রাণায়াম ও ধ্যান করুন।
    • c) রান্নায় হলুদ, জিরে, ধনে ও রসুন ব্যবহার করুন।
  • ২। অভ্যন্তরীণ প্রতিরোধ ক্ষমতা-বর্ধন পদ্ধতি :–
    • a) রোজ সকালে একবার ১০ গ্রাম চ্যবনপ্রাশ খান।
    • b) রোজ ১-২ বার তুলসী, দারুচিনি, গোলমরিচ, আদাশুট ও কিসমিস-এর ক্বাথ পান করুন। সঙ্গে হার্বাল চা খান।
    • c) ১৫০ মিলি গরম দুধে আধ চা চামচ হলুদগুঁড়ো মিশিয়ে রোজ ১-২ বার পান করুন।
  • ৩। সরল আয়ুর্বেদিক পদ্ধতি :–
    • a) সকাল ও সন্ধ্যায় দুই নাসারন্ধ্রে ফোঁটা ফোঁটা করে তিল তেল /নারকেল তেল বা তরল ঘি ঢালুন।
    • b) এক চা চামচ তিল /নারকেল তেল মুখে নিয়ে ২-৩ মিনিট ধরে কুলকুচি করুন। তারপর তা ফেলে দিয়ে গরম জলে মুখ ধুয়ে নিন। রোজ এক /দুবার এটা করুন।
  • ৪। গলাজ্বালা /শুকনো কাশির ক্ষেত্রে :–
    • a) দিনে একবার অন্তত গরম জলে পুদিনা পাতা বা জোয়ান ফেলে তার ভাপ নিন।
    • b) শুকনো কাশি হলে বা গলা জ্বালা করলে মধুর সঙ্গে লবঙ্গের গুঁড়ো মিশিয়ে রোজ দু -তিন বার খান।
    • c) এগুলি শুকনো কাশি বা গলা জ্বালার ক্ষেত্রে উপশম দেবে কিন্তু এই সব উপসর্গ এতে না সারলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

দেশের নিম্নলিখিত প্রবর বৈদ্যগণ এই পরামর্শ দিয়েছেন………
পদ্মশ্রী বৈদ্য পি আর কৃষ্ণকুমার (কোয়েম্বাটোর), পদ্ম-বিভূষণ বৈদ্য দেবেন্দ্র ত্রিগুণা (দিল্লি), বৈদ্য পি এম ভেরিয়ের (কোট্টাকল ), বৈদ্য জয়ন্ত দেবপূজারী (নাগপুর) প্রমুখ।

Related posts

Leave a Comment