sleep and carona effectMiscellaneous Trending News 

ঘুম করোনার আশঙ্কা কমায়- গবেষণায় এমনই তথ্য

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক: যত বেশি ঘুম,করোনার আশঙ্কা ততই কম। সাম্প্রতিক গবেষণায় এমনই তথ্য সামনে এসেছে। জানা গিয়েছে,
সমীক্ষা করার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে জার্মানি, ইটালি, স্পেন, ইউএসএ ও ইউকের স্বাস্থ্যকর্মীদের। এক বছর ধরে করোনার হাত থেকে বাঁচতে অনেকেই শিখে নিয়েছেন নানা কৌশল। অনেকেই লতাপাতার ভেষজ পাচন ব্যবহার করছেন। আবার অনেকে খাচ্ছেন কাঁচা হলুদ। তবে সাম্প্রতিক গবেষণা অন্য কথা জানিয়েছেন। ওই গবেষণা অনুযায়ী জানানো হয়েছে,করোনার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সারা দিনে ঠিকঠাক ঘুমোতে হবে। তাহলে করোনা না হওয়ার সম্ভাবনা বেশি,গবেষকদের এমনই দাবি।

বিএমজে নিউট্রিশন প্রিভেনশন অ্যান্ড হেলথ নামের একটি অনলাইন ম্যাগাজিনে এই গবেষণা প্রকাশ্যে এসেছে। এক্ষেত্রে জানা যায়,গত বছর জুলাই মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত ৮জন বিজ্ঞানী এই সমীক্ষা চালিয়েছেন। ওই গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে, যাঁদের ভালো ঘুম হয় না এবং যাঁরা সারা দিন অত্যন্তপরিশ্রম করেন, তাঁদের করোনা হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি থাকে। এক্ষেত্রে তাঁদের করোনা ছাড়াও অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হওয়ারও আশঙ্কা থেকে যায় । অসুস্থদের সুস্থ হয়ে উঠতেও অনেক বেশি সময় লাগে।

গবেষণায় আরও বলা হয়েছে,রাতে একজন যতক্ষণ ঘুমোচ্ছেন,প্রতি এক ঘণ্টা অন্তর করোনা হওয়ার আশঙ্কা ১২শতাংশ করে কমতে থাকে।
কোনও কারণে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটলে জীবাণু সংক্রমণ অনেক বেশি হয় বলে গবেষকদের দাবি । আবার যাঁরা হাড়ভাঙা পরিশ্রম করে থাকেন, তাঁদের এই আশঙ্কা আর দ্বিগুণ হয়। তবে গবেষকরা নিশ্চিত নয় যে,এটা করোনার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য কি না। এটা বোঝার জন্য কোভিড -১৯ রোগীদের সঙ্গে যাঁরা সরাসরি যুক্ত, সেই সব স্বাস্থ্যকর্মীদের বেছে নেওয়া হয়েছে।

এক্ষেত্রে আরও জানা যায়, মোট ২৮৮৪ জন স্বাস্থ্যকর্মী এই সমীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন। তার মধ্যে ৫৬৮ জন করোনায় আক্রান্ত । গবেষকদের বক্তব্য, যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন তাঁদেরকে ৫টি ভাগে ভাগ করা হয়েছিল। রোগের তীব্রতা অনুযায়ী এই ভাগ করা হয়।
গবেষণাটিতে দেখা গিয়েছে, ৬-৭ ঘণ্টার গড় ঘুম ছাড়িয়ে যদি ১ঘণ্টা করে বাড়তি ঘুমনো যায়, সেক্ষেত্রে করোনার আশঙ্কা ১২ শতাংশ করে কমে আসবে।

খবরটি পড়ে ভালো লাগলে লাইক-কমেন্ট ও শেয়ার করবেন।

Related posts

Leave a Comment