boro dhanMiscellaneous 

মিলছে না দক্ষ শ্রমিক, বোরো ধান কাটতে হবে চাষিকেই

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক: বোরো ধান কাটার এই মরশুমে করোনা সংক্রমণ ও লকডাউনের জেরে ফিরে আসছে সাবেকি পন্থা। কৃষিদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে এবার প্রায় ১২ লক্ষ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ হয়েছে। এখনই মাঠ থেকে সেই ধান কেটে তোলার সময়। আবার কৃষিদপ্তর সূত্রে বার্তা দেওয়া হয়েছে, ‘অ্যাম্ফুন’ নামে একটি ঘূর্ণিঝড় এপ্রিলের শেষ বা মে মাসের প্রথম সপ্তাহে পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানার সম্ভাবনা। তারজন্য যত দ্রুত সম্ভব বোরো ধান কেটে ঘরে তোলা প্রয়োজন।

অন্যদিকে, কম্বাইন হারভেস্টারের দক্ষ ড্রাইভার বা অপারেটরদের অধিকাংশই পাঞ্জাব ও হরিয়ানা থেকে এসে থাকেন। লকডাউনে তাঁরাও আসতে পারছেন না। ফলে সমস্যা বেড়েছে। আর এই সময় মিলছে না পর্যাপ্ত হারভেস্টার মেশিনও। চাষিকেই তাই বোরো ধান কাটতে হবে। স্থানীয় কৃষকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কম্বাইন হারভেস্টার চালানোর মতো দক্ষ লোক নেই। ফলে সেসব ব্যবহার করা যাচ্ছে না। অন্যদিকে, বোরো ধান কাটার জন্য কৃষিশ্রমিকরা মূলত এসে থাকেন মুর্শিদাবাদ ও ঝাড়খণ্ডের বিভিন্ন এলাকা থেকে। লকডাউন পরিস্থিতিতে তাঁরাও ঘরবন্দি।

এইসময় ঘনঘন কালবৈশাখিও হচ্ছে। ধান পাকার মরশুমে মাঠে জল দাঁড়িয়ে গেলে বিপদ বাড়বে কৃষকদের। এমতপরিস্থিতিতে নিজেদের জন্য ভবিষ্যতের খাদ্য নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে ধান কাটার কাজে নেমে পড়তে হবে স্থানীয় কৃষকদেরই। লকডাউনের জেরে পুরোনো পন্থাতেই ফিরে আসছেন কৃষকরা।

Related posts

Leave a Comment