Damage TreeMiscellaneous 

বনসৃজনের আগে মাটি পরীক্ষা জরুরি হয়ে পড়েছে সুন্দরবনে

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক : জলের সঙ্গে ভেসে এসেছে লবণ। সুন্দরবনের সবুজে যেন লেগেছে দাবানলের আগুন। বাদাবনে বহু গাছ শুকিয়ে হয়ে যাচ্ছে তামাটে। বাস্তুতন্ত্রের ভারসাম্য হারিয়েছে বলে সুন্দরবনের বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। “আম্ফান” দাপটের পর উপড়ে না গিয়েও সোজা থেকে মরে যাচ্ছে গাছ। বনসৃজনের আগে মাটি পরীক্ষাটা জরুরি হয়ে পড়েছে। স্থানীয় সূত্রের খবর, “আম্ফান” প্রলয়ের পর পরই গাছ সবুজ থেকে হলুদ হয়ে পড়ছে। হলুদের পরও রঙ পাল্টে তা বাদামি ও কালো হয়ে উঠছে। বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ অরণ্যে সবুজের আস্তরণ ক্রমশ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, আম, কাঁঠাল ও গরান প্রভৃতি গাছের পাতা হলুদ হতে শুরু করেছিল “আম্ফান” ঝাপটার পরই। অনেকেই ভেবেছিলেন নোনা আবহেই এই প্রভাব। পরবর্তীতে দেখা যাচ্ছে দাঁড়িয়ে থেকেও গাছ মরে যাচ্ছে। এ প্রসঙ্গে রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ম্যানগ্রোভের পাশাপাশি এই সবুজ ফেরাতে আমাদের আলাদা করে পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

Related posts

Leave a Comment