lusicaMiscellaneous 

যক্ষ্মার বাড়বাড়ন্তে সমীক্ষায় উদ্বেগ

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক: লকডাউন পরিস্থিতিতে বাড়ছে যক্ষ্মাও। সমীক্ষায় সতর্কবার্তাও জানানো হয়েছে। সূত্রের খবর, করোনা সংক্রমণ রুখতে লকডাউন পরিস্থিতিতে যক্ষ্মা নির্ণায়ক পরীক্ষা কমে যাচ্ছে। যারফলে বেড়ে যাচ্ছে যক্ষ্মাও। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-র তথ্য অনুযায়ী জানানো হয়েছে, ভারতে যক্ষ্মা রোগীর সংখ্যা সর্বোচ্চ। লকডাউন পর্বে এদেশে যক্ষ্মা নির্ণায়ক পরীক্ষা সপ্তাহে ৭৫ শতাংশ কমে গিয়েছে। রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসা না হলে আগামী কয়েক বছরে ভারতে যক্ষ্মারোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা। আবার ‘স্টপ টিবি পার্টনারশিপ’-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর লুসিকা দিতিউ এই হতাশার কথা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, লন্ডনের ইম্পোরিয়াল কলেজ, জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে একত্রিত হয়ে স্টপ টিবি পার্টনারশিপ যে সমীক্ষা চালিয়েছে তাতে যক্ষ্মার বাড়বাড়ন্তের ইঙ্গিত মিলেছে। এ প্রসঙ্গে লুসিকা দিতিউ জানিয়েছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বকে যক্ষ্মামুক্ত করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে নেমেছিলাম আমরা। এখন চিকিৎসা ও পরীক্ষার অভাবে যক্ষ্মায় যেভাবে মানুষ মারা যাচ্ছেন, তাতে মনে হচ্ছে যক্ষ্মা নির্মূলের কাজে আমরা এক ধাক্কায় ৭ বছর পিছিয়ে গিয়েছি। আরও আশঙ্কার কথা জানা গেল, ২০২৫ সালের মধ্যে সারাবিশ্বে ৬৩ লক্ষ মানুষের যক্ষ্মা আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

Related posts

Leave a Comment