PaddyMiscellaneous 

ঘূর্ণিঝড় “আম্ফান” ধেয়ে আসলে ব্যাপক ক্ষতির সম্ভাবনা চাষের

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়লে ক্ষতি হতে পারে চাষের, এমনই আশঙ্কা কৃষি দপ্তরের। সূত্রের খবর, ঘূর্ণিঝড় আম্ফান নিয়ে আতঙ্ক বেড়েছে। তা আছড়ে পড়লে চাষের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা। এই আশঙ্কায় ভুগছে কৃষি দপ্তর। উল্লেখ্য, এখন বোরো ধান কাটার মরসুম। এই সময় ঝড়-বৃষ্টি হলে ধানের ক্ষতি হতে পারে। আবার ভারি বৃষ্টি হলে সব্জিরও ক্ষতি হতে পারে। কৃষি দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ব মেদিনীপুরে ১৫ শতাংশ ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৫ শতাংশ জমিতে বোরো ধান এখনও রয়েছে। ওই ধান দ্রুত কাটার জন্য চাষিদের পরামর্শও দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে পূর্ব বর্ধমান জেলায় এখনও অনেক ধান মাঠে রয়েছে। তবে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব সেখানে পড়বে না বলে মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও পূর্ব মেদিনীপুরের পানের বরজ এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের তিল চাষ নিয়েও কৃষি দপ্তর উদ্বেগে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে, দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, হাওড়া ও হুগলি জেলায় ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আবার দুই ২৪ পরগনা জেলায় ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। এই দুই জেলাতে সব্জি চাষ বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। হুগলি ও নদিয়া জেলাতেও সব্জির ব্যাপক ফলন হয়ে থাকে। বেশি বৃষ্টি হলে সব্জি নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Related posts

Leave a Comment