Amphan Effect SagardwipMiscellaneous 

বহু এলাকা বিচ্ছিন্ন, চলছে দুই জেলায় ক্ষয়-ক্ষতির খতিয়ান

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক : “আম্ফান” তাণ্ডবের পর অতিক্রম করল ৪০ ঘন্টারও বেশি সময়। স্থানীয় সূত্রের খবর, সাগরদ্বীপ-সহ বিস্তীর্ণ এলাকা বিচ্ছিন্ন “আম্ফান”-এর পর। উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার পূর্ণাঙ্গ ক্ষয়-ক্ষতির খতিয়ান এখনও তৈরি হয়নি। সাগরদ্বীপের বেশ কিছু এলাকার সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না বলে খবর। সূত্রের আরও খবর, বিদ্যুৎ ও টেলি-যোগাযোগ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত। এক্ষেত্রে শুধুমাত্র রেডিও যোগাযোগের উপরে নির্ভর করেই উদ্ধার ও ত্রাণ কাজ শুরু করা হয়েছে বলেও জানা যায়। পাশাপাশি প্রশাসনিক সূত্রের খবর, দক্ষিণ ২৪ পরগনার ১১টি এবং উত্তর ২৪ পরগনার ৫টি ব্লক “আম্ফান”-এ ক্ষতিগ্রস্ত। বিপজ্জনক এলাকা থেকে বাসিন্দাদের শিবিরে সরিয়ে আনার জন্য প্রাণহানি ঠেকানো সম্ভব হয়েছে। উল্লেখ্য, উত্তর ২৪ পরগনায় গাছ ও বাড়ির দেওয়াল চাপা পড়ে ১৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। আবার দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ বেশি হলেও শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮ জন। জখম মানুষের সংখ্যা ৬৫ জন। প্রায় ২ লক্ষ বড়-মাঝারি গাছ উপড়ে পড়েছে বলে খবর। প্রশাসনিকভাবে আরও জানা গিয়েছে, বাড়ি ভেঙেছে প্রায় ৬ লক্ষ। ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যুৎ স্তম্ভের সংখ্যা প্রায় ২০ হাজার। আবার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে চাষে। নদীবাঁধ ভেঙে নোনা জল প্রবেশ করে দুই জেলায় প্লাবিত হয়েছে প্রায় ৩০টি এলাকা।

Related posts

Leave a Comment