close factoryKnowledge Update 

ক্রমশ অনিশ্চিত হচ্ছে কর্মজীবন

কাজকেরিয়ার অনলাইন নিউজ ডেস্ক: উৎপাদন বন্ধ। দুশ্চিন্তা বেড়েছে শ্রমিক-কর্পোরেট মহলেও। অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে বেতন, চাকরিও। জরুরি নির্দেশনামা জারি করে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার জানিয়েছিল, এই বিপর্যস্ত পরিস্থিতিতে কোনও সরকারি, বেসরকারি সংস্থায় স্থায়ী বা অস্থায়ী কোনও কর্মী বা শ্রমিকের বেতন কাটা যাবে না। এমনকী ছাঁটাইও চলবে না। বাস্তব চেহারা একেবারেই ভিন্ন। চা বাগানে বা চটকলে বেতন কাটা হচ্ছে বলে অভিযোগও উঠেছে। আবার অস্থায়ী কিছু শ্রমিকের হাতে অর্থও ফুরিয়েছে। চাকরি রয়েছে কিনা তাও অনিশ্চিত।

চেম্বার অফ কমার্সের কর্তাব্যক্তিরা আশঙ্কা করছেন, মে মাসের মাঝামাঝি নাগাদ যদি বিপর্যস্ত পরিস্থিতি চলে তবে আরও বিপদ বাড়বে। উৎপাদন বন্ধ থাকলে মাইনে আসবে কথা থেকে, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। এক্ষেত্রে কর্পোরেট কর্তাব্যক্তিদের বক্তব্য, সরকার দান-খয়রাতি নয়, আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করুক শিল্পের জন্য। শ্রমিক-কর্মচারী মহলে গোটা পরিস্থিতিতে দুশ্চিন্তার কালো মেঘ। আবার আইএনটিইউসি, এআইটিইউসি, ইউটিইউসি, টিইউসিসি, এআইসিসিটিইউ প্রভৃতি কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলি মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখে এই সংক্রান্ত অভিযোগও করেছে বলে জানা যায়।

Related posts

Leave a Comment